Breaking News

কে সেই ব্যক্তি যাকে হিটলার যমের মতো ভয় পেতেন? জানলে অবাক হবেন

আমরা সবাই ভয় পাই। কেউ বাঘের ভয়, কেউ ভুতের ভয়। কেউ আবার উ ভয় পাই ঘরের বদ মেজাজি স্ত্রীকে। আবার অনেকের রয়েছে সাপের ভয়। আবার অনেকের রয়েছে ভুতের ভয়, অনেকে ভয় পাই বজ্রপাতকে। কিন্তু পৃথিবীর সবচেয়ে জঘন্য ব্যক্তি অ্যাডলফ হিটলার ভয় পেত কিসে জানলে রীতিমত অবাক হবেন।

অ্যাডলফ হিটলারকে নাৎসি বাহিনীর মানবতাবিরোধী নানা অপরাধের জন্য পৃথিবীর সবচেয়ে ঘৃর্ণিত ব্যক্তি হিসেবে পরিচিত। তিনি চালিয়ে গেছেন নারকীয় সব হত্যাকান্ড। এটা ভুলেও কারো মাথায় আসবে না যে তিনিও কোনো মানুষকে যমের মতো ভয় পেতে পারেন।

এই ভয়ঙ্কর মানুষটি জার্মানির একনায়ক হয়েও ভীষণ ভয় পেতেন দাঁতের ডাক্তারের কাছে যেতে! অবিশ্বাস্য শোনালেও কথাটি আসলেই সত্য। ২০০৯ সালে প্রকাশিত ‘ডেন্টিস্ট অভ দ্য ডেভিল’ বইটিতে লেখক মেনেভ্‌স ডেপ্রেম-হেনেন এমন কথাই জানিয়েছেন।

হিটলারের জন্য তো যেন তেন কাউকে দাঁতের ডাক্তার হিসেবে নিয়োগ দেয়া যায় না। তার জন্য ছিলো নির্ধারিত একজন ডাক্তার। আর এ দায়িত্বটি পালন করতেন এসএস বাহিনীর ডেপুটি চীফ ডেন্টাল সার্জন ডাক্তার হুগো বালশ্‌ক, যিনি প্রায় দুই দশক ধরে হিটলারের দাঁতের পরিচর্যার দায়িত্ব পালন করেছেন।

দাঁতের নানা সমস্যায় ভুগলেও দাঁতের ডাক্তারের কাছে যেতে ভয় পেতেন হিটলার। এজন্য সেই সমস্যাগুলো ক্রমাগত বাড়তে থাকায় দাঁত তাকে ভালোই ভোগাতো। বালশ্‌ক জানিয়েছিলেন, হিটলার প্রায় সময়ই দাঁতের ব্যথার ব্যাপারে বলতেন।

এছাড়া তার মুখে ছিলো মারাত্মক দুর্গন্ধ আর দাঁতগুলো ছিলো হলুদাভ। মুখে ফোঁড়া এবং মাড়ির রোগেও ভুগছিলেন তিনি। একবার একটি রুট ক্যানাল করাতে স্বাভাবিকের চেয়ে অনেক বেশি সময় নিয়েছিলেন তিনি কেবলমাত্র দাঁতব্যথার ভয়েই। সত্যিই যে যতই ভয়ঙ্কর হোক না কেন সে কোননা কোন কিছুর উপর ভয় তার থাকবেই।