Breaking News

সূরা এখলাসের ফজিলত…. দৈনিক ২০০ বার অজুর সাথে পড়লে ১০টি ফায়দা !!

সূরা এখলাসের ফজিলত…. দৈনিক ২০০ বার অজুর সাথে পড়লে ১০টি ফায়দা !!

দৈনিক ২০০ বার অজুর সাথে পড়লে ১০টি ফায়দা।

১) আল্লাহ তায়ালা তার রাগের ৩০০ দরজা বন্ধ করে দিবেন।

২) রহমতের ৩০ দরজা খুলবেন।

৩) রিজিকের ৩০০ দরজা খুলবেন।

৪) মেহেনত ছাড়া গায়েব থেকে রিজিক পৌছাবেন।

৫) আল্লাহ তায়ালা নিজের এলেম থেকে এলেম দিবেন।আপন ছবর থেকে ছবর দিবেন।আপন বুঝথেকে বুঝ দিবেন।

৬) ৬৬বার কুরআন খতম করার ছাওয়াব দিবেন।

৭) ৫০ বছরের গুনাহ মাফ করবেন।

৮) জান্নাতের মধ্যে ২০টি মহল দিবেন, যেগুলো ইয়াকুত মার্জান ও জমজদের তৈরী এবং প্রত্যেক মহলের ৭০ হজার দরজা হবে।

৯) ২০০০রাকাত নফল পড়ার ছাওয়াব দিবেন।

১০) যখন তিনি মারা যাবেন ১,১০,০০০ ফেরেশ্তা তার যানাযায় শরিক হবেন।

ছোট্ট এই দোয়াটি ৭০ বার পড়লেই রিযিকের সব দরজা খুলে যাবে ইনশাআল্লাহ।

পবিত্র কুরআন শরীফ মানব জাতির জীবন পরিচালনার গাইড। মহান আল্লাহ তাআলা মানুষ এবং জিন জাতিকে পৃথিবীতে তাঁর ইবাদাত-বন্দেগি করার জন্যই সৃষ্টি করেছেন। এ জীবন পরিচালনার জন্য তিনি গাইডস্বরূপ কুরআনুল কারিম নাজিল করেছেন।

কুরআনের মানুষের সব সমাধান রয়েছে। কুরআনের বিধান পালনের সঙ্গে সঙ্গে কুরআনি আমল করাও মানুষের জন্য অত্যন্ত জরুরি। ইবাদাত কবুলের পূর্বশর্তই হলো হালাল জীবিকা উপার্জন করা। তাই হালাল রিযিক লাভের কুরআনি আমল তুলে ধরা হলো-

উচ্চারণ: আল্লাহু লাতিফুম্ বি-ই’বাদিহি ইয়ারযুকু মাইঁয়্যাশায়ু, ওয়া হুয়াল কাওইয়্যুল আজিজ।

অর্থ: আল্লাহ তাঁর বান্দাদের প্রতি দয়ালু। তিনি যাকে ইচ্ছা রিযিক দান করেন। তিনি প্রবল, পরাক্রমশালী। (সুরা শুরা : আয়াত ১৯)

আমল: প্রতিদিন সকালে নিয়ম করে, একনিষ্ঠতার সঙ্গে ৭০ বার এ আয়াত পড়া। যে বা যারা নিয়মিত এ আমল করবে; আল্লাহ তাআলা ওই ব্যক্তির রিযিকের দরজা খুলে দেবে ইনশাআল্লাহ।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে তাঁর বিধি-বিধান পালনের সঙ্গে সঙ্গে কুরআনের উল্লেখিত আয়াতে আমলটি নিয়মিত করার তাওফিক দান করুন। আমিন।