Breaking News

এবার ফাঁস হল নতুন তথ্য, যে কারণে বিধ্বস্ত হলো বিমানটি

নেপালের ত্রিভুবন বিমানবন্দরের কন্ট্রোল টাওয়ার থেকে দেয়া ভুল বার্তার কারণে সোমবার বিমান দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে দাবি করেছেন ইউএস-বাংলা এয়ারলাইনসের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ইমরান আসিফ। সন্ধ্যা ৭টার দিকে ঢাকাস্থ ইউএস বাংলার কার্যালয়ের সামনে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে তিনি এ তথ্য জানান।

ইমরান আসিফ বলেন, বিমানের ক্যাপ্টেনের সঙ্গে বিমানবন্দরের কন্ট্রোল টাওয়ার থেকে ভুল বার্তা দেয়া হয়েছিল। ইতিমধ্যে এর অডিও বার্তা ইউটিউবে প্রকাশ করা হয়েছে। যে কেউ ইউটিবে গেলে সেটি শুনতে পারবেন।

এদিকে বিমান দুর্ঘটনায় এ পর্যন্ত ৫০ জন নিহত হওয়ার খবর নিশ্চিত করেছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম আল জাজিরা। ৬৭ জন যাত্রী ও ৪ জন ক্রু নিয়ে ঢাকার শাহজালার আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে দুপুরে ছেড়ে যায় বিমানটি। দুপুরের পরপরই বিমানটি বিধ্বস্ত হয়।

তবে ইউএস বাংলার দাবির প্রেক্ষিতে নেপাল কর্তৃপক্ষ এখনো কোনো প্রতিক্রিয়া দেখায়নি। বিমানবন্দরে কোনো ত্রুটি আছে বলেও এখনো স্বীকার করেনি তারা। এদিকে বিমানে যান্ত্রিক কোনো ত্রুটি ছিল না বলে জানিয়েছে ইউএস বাংলা কর্তৃপক্ষ। বিমান উড্ডয়নের আগে সব ধরনের পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়েছিল এবং তখন কোনো ধরনের ত্রুটি পাওয়া যায়নি।

যুক্তরাজ্যভিত্তিক আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম ডেইলি ইনডিপেন্ডেন্ট স্থানীয় প্রতিনিধির মাধ্যমে জানাচ্ছে, বিমানটি কাঠমান্ডু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের রানওয়ে (২নং প্ল্যাটফর্ম) থেকে পাশের ফুটবল খেলার মাঠে বিধ্বস্ত হয়।

বিধ্বস্ত বিমান
সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, প্লেনটি বোম্বার্ডিয়ার ড্যাশ ৮ কিউ৪০০ মডেলের এস২-এজিইউ। বাইরে পাখাবিশিষ্ট এ ধরনের প্লেনে সর্বোচ্চ ৭৮টি আসন থাকে।