Breaking News

‘উচ্চ মাধ্যমিক ছাড়া ড্রাইভিং লাইসেন্স নয়’

ন্যূনতম শিক্ষাগত যোগ্যতা উচ্চ মাধ্যমিক পাস না হলে কাউকে ড্রাইডিং লাইসেন্স না দিতে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষকে (বিআরটিএ) পরামর্শ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম। বৃহস্পতিবার রাজধানীর বসুন্ধরা আন্তর্জাতিক কনভেনশন সিটিতে মটরসাইকেল, গাড়ি ও অটোমোটিভ পার্টসের প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন।

সড়ক দুর্ঘটনার জন্য চালকদের দায়ী করে এইচ টি ইমাম বলেন, যানবাহনের চালকেরা খেয়ালই করছে না সড়কে অন্যরা কী করছে! চালকরা এমন ভাব করে যে, তারা রাস্তার রাজা। আইন-কানুন, মন্দ-ভালোর তোয়াক্কাই করছে না কেউ, আর এজন্যই সড়কে দুর্ঘটনা বেড়ে চলছে।

যাচাই-বাছাই না করে চালকদের লাইসেন্স দেওয়ার কারণেই সড়ক দুর্ঘটনা বেড়ে চলছে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

চালকদের লাইসেন্স দেওয়ার ক্ষেত্রে আরও কঠোর হওয়ার আহ্বান জানিয়ে বিআরটিএ কর্মকর্তাদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রীর এই উপদেষ্টা বলেন, অশিক্ষিত লোকদের লাইসেন্স দেবেন না। চালকদের মৌলিক শিক্ষা থাকতে হবে, যা হতে হবে ন্যূনতম উচ্চ মাধ্যমিক। যদিও আমাদের দেশে উচ্চ মাধ্যমিক সনদ অর্জন করা এখন বেশ সহজ। তারপরও আমি বলতে চাই, দয়া করে উচ্চ মাধ্যমিক সনদ নেই এমন কাউকে গাড়ি চালানোর লাইসেন্স দেবেন না।

মটরযান ও গাড়ির লাইসেন্স আবেদনের ক্ষেত্রে এখনও শিক্ষাগত যোগ্যতার কোনো শর্ত রাখেনি বিআরটিএ। অনুষ্ঠানের শুরুতে সেমস গ্লোবালের আয়োজনে ‘১৩তম ঢাকা মোটর শো-২০১৮’, ‘চতুর্থ ঢাকা বাইক শো-২০১৮’, ‘তৃতীয় ঢাকা অটোপার্টস শো ২০১৮’ এবং ‘দ্বিতীয় ঢাকা কমার্শিয়াল অটোমোটিভ শো ২০১৮’ শিরোনামে প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন এইচ টি ইমাম।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিআরটিএ সচিব মোহাম্মদ শওকত আলী, এনার্জিপ্যাক জেনারেশন লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হুমায়ুন রশিদ, র‌্যানকন মোটরবাইকস্ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শাওন হাকিম, সেমস গ্লোবালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মেহেরুন এন ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

জাপান, ফ্রান্স, কোরিয়া, চীন, যুক্তরাষ্ট্র, ইতালি, ভিয়েতনাম, ভারত, বাংলাদেশসহ বিশ্বের ১৬টি দেশের অটোমোটিভ, কার, বাইক ও অটো যন্ত্রাংশ শিল্পের প্রায় ২৩৫টি প্রতিষ্ঠান ৬২০টি স্টলে নিজেদের পণ্য সাজিয়ে এই আন্তর্জাতিক প্রদর্শনীতে অশ নিয়েছে। ব্র্যান্ড নিউ গাড়ি, মটরবাইক, বাস, ট্রাক, বাণিজ্যিক পরিবহন, লুব্রিকেন্ট, সিএনজি রূপান্তরসহ অটো যন্ত্রাংশের বিশাল সমাহার রয়েছে এখানে।

মেহেরুন এন ইসলাম বলেন, প্রদর্শনীটি মটর ইন্ডাস্ট্রির জন্য একটি ওয়ান স্টপ প্ল্যাটফর্ম হিসেবে কাজ করবে, যা বাংলাদেশে অটোমোটিভ, বাইক ও অটো যন্ত্রাংশ শিল্পের বাজার সম্প্রসারণে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে।

প্রতিদিন সকাল সাড়ে ১০টা থেকে রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে প্রদর্শনী, চলবে শনিবার পর্যন্ত।