Breaking News

কলকাতায় সেরা বাঙালির তালিকায় মাশরাফি

প্রতিবেশি দেশ ভারতের শহর কলকাতার এবিপি মিডিয়া গ্রুপ প্রতিবছর বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে অবদান রাখার জন্য বাঙালিদের পুরস্কৃত করে থাকে। এই পুরস্কারে আবার আঞ্চলিক কোনো বাধা থাকে না। যেখানে এবারের সংস্করণে খেলোয়াড় বিভাগের সংক্ষিপ্ত তালিকায় রয়েছেন নড়াইল এক্সপ্রেস খ্যাত মাশরাফি।

দীর্ঘ ক্রিকেট ক্যারিয়ারে ইনজুরির কারণে বেশ কয়েকবার থমকে যেতে হয়েছিলো মাশরাফি বিন মর্তুজাকে। তবে বরাবরই উঠে দাঁড়িয়ে সাফল্যের মুখ দেখেছেন জাতীয় ওয়ানডে দলের বর্তমান এ অধিনায়ক। এবার এই খেলোয়াড়ী জীবনই হয়তো ম্যাশের আরও একটি সাফল্য এনে দিতে পারে।

আগামী ২৯ জুলাই ‘সেরা বাঙালি ২০১৭’ শিরোনামের এই পুরস্কার বিতরণীটি অনুষ্ঠিত হবে। এমনটি জানিয়েছে কলকাতার দৈনিক আনন্দবাজার পত্রিকা ও এবিপি আনন্দ চ্যানেল। যেখানে মাশরাফির তালিকায় থাকার ব্যাপারটি ইতোমধ্যে নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। যদিও মাশরাফি নিজে এ ব্যাপারে এখনও কোনো মন্তব্য করেননি।

প্রতিবছরের মতো এবারও এই অনুষ্ঠানটি সরাসরি সম্প্রচার করবে এবিপি আনন্দ চ্যানেল। এর আগে বেশ কয়েকজন তারকা ক্রিকেটার এই পুরস্কারে ভূষিত হয়েছিলেন। যাদের মধ্যে ২০০৭ সালে বাংলাদেশের সে সময়ের অধিনায়ক হাবিবুল বাশার ও ভারতের সৌরভ গাঙ্গুলি পুরস্কার লাভ করেছিলেন।

বাংলাদেশের আরেক তারকা সাকিব আল হাসান, ভারতের মনোজ তিওয়ারি ও সে দেশের নারী ক্রিকেটার ঝুলন গোস্বামী ২০১২ সালে পুরস্কার জেতেন। এছাড়া অভিনেতা মিথুন চক্রবর্তী ও অর্থনৈতিক বিভাগে বাংলাদেশের মোহাম্মদ ইউনুস ও ভারতের অমর্ত্য সেন বেশ কয়েকবার এই আসরে পুরস্কার পান।

এদিকে এবিপি বিশ্বাস করে, ক্রিকেটে বাঙালিদের গর্ব মাশরাফি এবং বাঙালিকে বিশ্ব দরবারে উপস্থাপন করে বিশেষ অবদান রেখেছেন ডানহাতি এ পেস বোলার। আধুনিক ক্রিকেটে বাংলাদেশকে তিনি নতুন উচ্চতায়ও নিয়ে গেছেন।

উল্লেখ্য, গত ৬ এপ্রিল শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে মাঠে নামার আগে ক্রিকেটের এই ফরম্যাটকে বিদায় বলে দেন মাশরাফী। এক যুগেরও বেশি সময় ধরে বাংলাদেশ ক্রিকেটকে রাঙাচ্ছেন মাশরাফি। হয় ব্যাটে না হয় বলে।

২০০৬ সালে খুলনায় জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টিতে অভিষেক হয় তার। এরপর দেশের জার্সিতে ৫৪টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন মাশরাফি। বল হাতে শিকার করেছেন ৪২টি উইকেট। ব্যাট হাতে ৩৯ ইনিংসে করেছেন ৩৭৭ রান। সর্বোচ্চ ৩৬। অপরাজিত ছিলেন ১১ বার। টি-টোয়েন্টিতে রেকর্ড ২৮টি ম্যাচে বাংলাদেশ দলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন মাশরাফি। তার নেতৃত্বে লাল-সবুজের দেশটি জিতেছে ১০টি ম্যাচ। যেটা অধিনায়ক হিসেবে কোনো বাংলাদেশির সর্বোচ্চ সাফল্য।

খেলেছেন ৩৬টি টেস্ট। নিয়েছেন ৭৮টি উইকেট। গড় ৪১.৫২, ইকনোমি রেট ৩.২৪ করে। রান করেছেন ৭৯।